রাজশাহীতে অপরিপক্ব টমেটো পাকানোর দায়ে তিন কৃষককে কারাদণ্ড দিয়েছে ভ্রাম্যমান আদালত।

গোদাগাড়ী প্রতিনিধি: রাজশাহীর গোদাগাড়ীতে মেডিসিন হরমোন জাতীয় ইথেফোন গ্রুপের ওষুধ দিয়ে স্প্রের মাধ্যমে অপরিপক্ব টমেটো পাকানোর দায়ে তিন কৃষককে কারাদণ্ড দিয়েছে ভ্রাম্যমান আদালত।

গোদাগাড়ী উপজেলা নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) মুহাম্মদ ইমরানুল হকের নেতৃত্বে সোমবার দুপুর ১২ টায় গোদাগাড়ীর রাজাবাড়ী, বিজয়নগর মাঠে অভিযান চালিয়ে তাদেরকে এ কারাদণ্ড দেয়া হয়।

স্বাস্থ্যের জন্য ক্ষতিকর ও ফল পাকানোর জন্য ব্যবহারযোগ্য নয়, এমন হরমনজাতীয় মেডিসিন দিয়ে ফল পাকানোর সময় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ আইন ২০০৯ এর ৪২ ধারায় তিন কৃষককে ৭ দিনের বিনাশ্রম করাদন্ড দেওয়া হয়।

কারাদণ্ডপ্রাপ্তরা হলেন, উপজেলার বিজয়নগর এলাকার মৃত মেরাজ উদ্দীনের ছেলে ওয়াজনবী (৫৮) ও তার ভাই রফিকুল ইসলাম (৪০) এবং পবা উপজেলার হরিপুর এলাকার ওমর আলীর ছেলে আকতারুজ্জামান (৩৮)।

গোদাগাড়ী উপজেলা নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও সহকারী কমিশনার (ভূমি) মুহাম্মদ ইমরানুল হক বলেন,  স্বাস্থ্যের জন্য ক্ষতিকর এ ধরণের মেডিসিন দিয়ে টমেটোসহ অন্যান্য ফল পাকানো হলে, আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে এবং কোন সিন্ডিকেটকে ছাড় দেওয়া হবে না। উপজেলা প্রশাসন ভোক্তাদের সংরক্ষণে সর্বদা কাজ করবে। এতে উপজেলাবাসীর সহযোগীতা কামনা করেন তিনি।

তিনি আরও বলেন, গোদাগাড়ী টমেটো ব্যবসায়ীরা যে হরমোন জাতীয় মেডিসিন দিয়ে ফল পাকানোর কাজ করছে, এই বোতলের শরীরে স্পষ্টভাবে লেখা রয়েছে ফল পাকানোর জন্য ব্যবহার করা যাবে না। তবুও টমেটো ব্যবসায়ীরা এটি ব্যবহার করেছে। তাই ভোক্তা সংরক্ষণ আইন ২০০৯ এর ৪২ ধারায় তাদের কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে। তিনি কৃষক ও টমেটো ব্যবসায়ীদের স্বাস্থ্যের জন্য ক্ষতিকর কোন মেডিসিন দিয়ে ফল না পাকানোর জন্য বিশেষভাবে অনুরোধ করেন।